1. admin@esaharanews.com : admin :
মঙ্গলবার, ১৫ জুন ২০২১, ০৬:১৮ পূর্বাহ্ন

জাল স্বাক্ষরে ৬ কনটেইনার পণ্য পাচারের চেষ্টা, সি অ্যান্ড এফ এর লাইসেন্স বাতিল

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ২ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ১১৭ বার পড়া হয়েছে

বিশেষ প্রতিনিধিঃ চট্টগ্রাম কাস্টমসের রাজস্ব কর্মকর্তার স্বাক্ষর জাল করেন সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট মেসার্স এসজিএস কোম্পানি। এই ঘটনার পর বাতিল করা হল এজেন্টের লাইসেন্স।এই কোম্পানির মালিক হচ্ছেন মোহাম্মদ আবু সাইদ বকুল।

ঢাকার কোতোয়ালী থানার বীরেন বোস স্ট্রিটের আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান মেসার্স আজান ট্রেডার্স কোরিয়া থেকে এইচডিডিই গ্রেড এমএফ ৫০০ ঘোষণায় ছয় কন্টেইনার পণ্য আমদানি করে। বন্দর থেকে পণ্য খালাসের জন্য দায়িত্ব দেয়া হয় সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট মেসার্স এসজিএস কোম্পানিকে।

উক্ত এজেন্ট ১৭ ডিসেম্বর বিল অব এন্ট্রি (সি নং ১৭৫৮২৫৬) দাখিল করেন। উক্ত চালানে আমদানিকারক, সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট, জেটি সরকার যোগসাজসে রাজস্ব কর্মকর্তার স্বাক্ষর জাল করে ৬ কনটেইনার পণ্য পাচারের চেষ্টা করেন।

পণ্যগুলো ট্রাকে তুলে এমপিবি গেইট পার হওয়ার সময় নিরাপত্তা কর্মীদের সন্দেহ হয়। এ সময় রাজস্ব কর্মকর্তার স্বাক্ষর খতিয়ে দেখলে তাতে জাল স্বাক্ষর পাওয়া যায়।

ওই সময় জেটি সরকার ওমর ফারুক স্বাক্ষর জাল করার কথা স্বীকার করেন কাস্টমস কর্মকর্তাদের কাছে। এরপর সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টের লাইসেন্স সাময়িক স্থগিত করে এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থার নেওয়ার সুপারিশ করা হয়।

কাস্টমস আইনে বলা আছে, কাস্টমস এজেন্টস বিধিমালা-২০১৬ এর বিধি ১৪ মতে দায়িত্ব ও কর্তব্যের পরিপন্থী, যা শাস্তিযোগ্য ও লাইসেন্স বাতিলযোগ্য অপরাধ।

চট্টগ্রাম কাস্টমসের উপ-কমিশনার সুলতান মাহমুদ বলেন, ‘বিধিমালা ভঙ্গের দায়ে এসজিএস কোম্পানির লাইসেন্স বাতিল করা হয়েছে।

এসজিএসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবু সাইদ বকুল বলেন, ‘জেটি সরকার কেন স্বাক্ষর জাল করল সেটা বুঝতে পারছি না। জেটি সরকার পলাতক রয়েছে। তবে, পণ্যের ঘোষণার সঙ্গে কোন ধরনের গরমিল ছিল না। মিথ্যা ঘোষণার কিছুই ছিল না।’
সুএ : আমাদের সময়

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

SJ