ঢাকামঙ্গলবার, ৬ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, রাত ৩:১০
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বিরেন শিকদারই নৌকার সফল মাঝি, প্রমাণ করে সংসদে মাথা উঁচু মাগুরা -সংসদ ০২।

admin
আগস্ট ১, ২০২২ ৫:৩৮ অপরাহ্ণ
পঠিত: 149 বার
Link Copied!

দীনবন্ধু মজুমদার : ১৯৯৬ থেকে ২০০১ একজন বিরেন শিকদার সংসদে বিরাজ করলেন! এই পাঁচ বছরে অনেক আলোচনা সমালোচনা হলো। ২০০১ এ নেত্রী নমিনেশন পরিবর্তন করলেন, মাগুরা-০২ আসন হারলো! তারপর থেকে মাগুরার শালিখা -মোহাম্মদপুরের নেতারা যে হারে নির্যাতিত হয়েছেন তার প্রমাণ আমি স্বয়ং! এই সময় কালে আমরা দুই ভাই আমাদের বাবাকে খুব কমসময় কাছে পেয়েছি৷ বাবাকে পালিয়েই থাকতে হত! যাইহোক মূল কথায় আসি। ২০০৮ সালের ২৯ শে ডিসেম্বর বিরেন শিকদারই নৌকার সফল মাঝি হিসেবে নিজেকে প্রমাণ করে সংসদে মাথা উঁচু করে মাগুরা -০২ মানুষের কথা বলার বলার গৌরব দিয়েছেন।

২০০৮ সাল থেকে শালিখা-মোহাম্মদপুরে সোনার বাংলার সোনার প্রলেপ এঁটে চলেছেন আজ অব্দি। ২০১৪ সালে নেত্রীর আস্থার জায়গা সফল করে আবার মনোনিত হলে একজন বিরেন শিকদার, এবার পেলেন মন্ত্রীত্ব! যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের, প্রতিমন্ত্রী( ২০১৪-২০১৯)।

তারপর ২০১৯ সালেও নেত্রী একজন বিরেন শিকদারের ওপরই আস্থা রাখলেন! এখনও উনি নেত্রীর আস্থার মর্যাদা রেখে যাচ্ছেন। এখন অব্দি মাগুরা, জেলায় রূপান্তর হওয়ার পর থেকে একজন বিরেন শিকদারই জনপ্রিয় তা কিন্তু তিনি প্রমাণ করে দিয়েছেন। এটা প্রমাণিত!

এখন মোদ্দাকথা হলো কিছু বিশেষজ্ঞ আছেন যাঁরা একজন বিরেন শিকদারকে বিশ্লেষণ করেন, অমর্যাদা করেন। করতেই পারেন, আলোচনা সমালোচনা আছে বলেই আজ বিরেন শিকদার মাগুরা -০২ কে এই অব্দি নিয়ে আসতে পেরেছেন। আপনারা সমালোচনা করুন, আপনাদের সমালোচনা একজন বিরেন শিকদারকে অমরত্বের দিকে নিয়ে যাবে!

ধন্যবাদ মাগুরার মহান নেতাকে, গভীর শ্রদ্ধা আপনাকে! আপনার দেখানো সত্যের পথ ধরেই চলব।🙏🙏🙏

জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু। ❤️❤️