ঢাকারবিবার, ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, রাত ১১:৫৪
আজকের সর্বশেষ সবখবর

১৭ অক্টোবর সভাপতি নির্বাচন করবে কংগ্রেস, বৈঠক শেষে চূড়ান্ত নির্ঘণ্ট জানাল এআইসিসি

admin
আগস্ট ২৮, ২০২২ ৯:০৯ অপরাহ্ণ
পঠিত: 22 বার
Link Copied!

নিজস্ব প্রতিবেদন : অবশেষে কংগ্রেসের সভাপতি নির্বাচনের নির্ঘণ্ট জানিয়ে দিল দলের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারক সংস্থা কংগ্রেস ওয়ার্কিং কমিটি (এআইসিসি)। শতাব্দীপ্রাচীন দলটির নতুন সভাপতি বেছে নেওয়ার জন্য ভোট নেওয়া ১৭ অক্টোবর। ভোটগণনা হবে ১৯ অক্টোবর। এআইসিসি সূত্রে জানা গিয়েছে, দলের তরফে ২২ সেপ্টেম্বর নির্বাচনের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে। ২৪ থেকে ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে মনোনয়ন জমা দেওয়া যাবে। সর্বসম্মতিক্রমে কেউ সভাপতি হিসাবে মনোনীত হলে, কিংবা একের বেশি প্রার্থী না থাকলে নির্বাচনের প্রয়োজন পড়বে না। পূর্বনির্ধারিত সূচি অনুযায়ী রবিবার বৈঠকে বসেছিলেন এআইসিসির সদস্যরা। ভার্চুয়াল এই বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গাঁধী। রাহুল, প্রিয়ঙ্কা, মনমোহন সিংহ, কেসি বেণুগোপাল, অধীর চৌধুরী, জয়রাম রমেশ, পি চিদম্বরমের মতো নেতারা এই বৈঠকে যোগ দিয়েছিলেন। দুই কংগ্রেস শাসিত রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী রাজস্থানের অশোক গহলৌত এবং ছত্তীসগঢ়ের ভূপেশ বঘেল এই বৈঠকে যোগ দিয়েছিলেন। কংগ্রেসের বিক্ষুব্ধ জি-২৩ (গুলাম নবি আজাদের দলত্যাগের পর অবশ্য জি-২২) গোষ্ঠীর অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সদস্য আনন্দ শর্মাও এই বৈঠকে যোগ দিয়েছিলেন।কংগ্রেসের তরফে কিছু দিন আগেই জানানো হয়েছিল, দলের নতুন সভাপতি বেছে নেওয়ার প্রক্রিয়ায় খানিক বিলম্ব হলেও অক্টোবরে পূর্ণ সময়ের এক জন সভাপতিকে বেছে নেবে কংগ্রেস। সেই মতোই ১৯ অক্টোবর (নির্বাচন হলে)-এর মধ্যেই জানা যাবে, সনিয়া গাঁধীর পর কে হতে চলেছেন কংগ্রেসের সভাপতি। তবে নতুন সভাপতি গাঁধী পরিবারেরই কেউ হবেন না কি তার বাইরে থেকে অন্য কাউকে দল সভাপতি হিসাবে বেছে নেবে, তা নিয়ে দলের অন্দরে এবং বাইরে নানা জল্পনা চলছে।

দু’দিন আগেই রাহুল গাঁধীর বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়ে কংগ্রেস ছেড়েছেন বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতা গুলাম নবি আজাদ। আজাদের দল ছাড়ার পরে কংগ্রেস নেতা মল্লিকার্জুন খড়্গে জানিয়েছিলেন, তাঁরা রাহুলকেই সভাপতি হওয়ার জন্য জোর করবেন। এরই মধ্যে জল্পনা ছড়িয়ে পড়ে গাঁধী পরিবারের আস্থাভাজন অশোক গহলৌতকে সভাপতি হিসাবে বেছে নিতে পারে দল। গহলৌত অবশ্য সেই জল্পনা উড়িয়ে দিয়ে জানান, তিনি রাহুলকেই সভাপতি হিসাবে দেখতে চান।

সুত্রআনন্দবাজার পত্রিকা