ঢাকামঙ্গলবার, ৬ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, রাত ২:৫৭
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ধর্মের জন্য যুগ যুগ ধরে অনেক বলিদান হয়

admin
অক্টোবর ১, ২০২২ ৬:৪২ অপরাহ্ণ
পঠিত: 51 বার
Link Copied!

ধর্মের জন্য যুগ যুগ ধরে অনেক বলিদান হয়।।।

ব্রম্মর্ষি দধিচী ঋষি ধর্মের রক্ষার জন্য নিজের অস্থি দান করেছিলেন এ কথা হয়তো অনেকেই জানেন,কি সে হাড় দিয়ে কি কি তৈরী হয়ে ছিল জানেন কি?…
অনেকেই জানেন ব্রম্মর্ষি দধিচীর হাড় থেকে একঘ্নি নামক বজ্র তৈরি হয়েছিল…যেটা ভগবান ইন্দ্রের প্রাপ্তি হয়েছিল!
এই একঘ্নি বজ্র ইন্দ্র কর্নের তপস্যায় খুশি হয়ে কর্নেকে দিয়েছিলেন।যা কর্ন সযত্নে রেখেছিলেন অর্জুনকে মারবার জন্য।কিন্তু ভগবান কৃষ্ণের চক্রান্তে এই একঘ্নি বজ্র দ্বারা কুরুক্ষেত্রের যুদ্ধে কর্ন ভীমের মহাপ্রতাপী পুত্র ঘটোৎকচ বধ করে ছিলেন।
এছাড়াও তার হাড় দিয়ে তিনটি ধনুক তৈরি হয়েছিল…
(১) গান্ডীব (২) পিনাক (৩) সারঙ্গ
 যার মধ্যে গান্ডীব অর্জুন পেয়েছিলেন এবং যার শক্তির কারনে অর্জুন মহাভারতের যুদ্ধ জয়লাভ করেছিলেন!
সারঙ্গ দিয়ে ভগবান রামচন্দ্র যুদ্ধ করেছিলেন এবং রাবনের অত্যাচারী রাজ্যকে ধ্বংস করেছিলেন!
আর পিনাক ছিল ভগবান শিবের কাছে।যেটা তপস্যার মাধ্যমে প্রসন্ন হওয়ার কারণে ভগবান শিবের কাছ থেকে রাবন চেয়ে নিয়েছিল।
কিন্তু সেটার ভার রাবন দীর্ঘ সময় পর্যন্ত বহন না করতে পারার কারণে জনকপুরী তে ছেড়ে এসেছিল!
এই পিনাকের নিত্য সেবা মা সীতা করতেন! এই পিনাক ধনুক ভেঙেই ভগবান রামচন্দ্র সীতাকে বিয়ে করেছিলেন…
এছাড়াও আরো অনেক অস্ত্র-শস্ত্র তৈরি হয়েছিল তার হাড় দ্বারা।
ব্রম্মর্ষি দধিচীর প্রান ত্যাগ করে নিজের অস্থি দ্বারা নির্মিত এই অস্ত্র দানের একমাত্র কারণ ছিল অন্যায়,অধর্ম বিরুদ্ধে আত্ম ত্যাগের শিক্ষাদান।
কিন্তু আমারা আমাদের পূর্ব পুরুষদের এই আত্মবলিদান ক্রমশ বিস্মৃত হয়ে বর্তমানে বড় বেশী আত্ম কেন্দ্রীক হয়ে পরছি,বড় বেশী স্বার্থ পর হয়ে পড়ছি । একান্নবর্তী পরিবার আজ বিলুপ্ত…এখন সবচাইতে আশ্চর্য এই যে আধুনিকতার ছোঁয়ায় কালের যে বিবর্তন ক্রম বধমান তাতে পরিসংখ্যানুযায়ী দেখা যাচ্ছে বিবাহের তুলনায় বিবাহ বিচ্ছেদের সংখ্যা অনেক বেশী। মানে “হাম দো,হামারা দো” রূপের একটা সুখি পরিবারও আজ বিলুপ্তির পথে,আর এর সুদূরপসারি ফল কিন্তু মোটেই সুখকর নয়।
লেখা ও ছবি সংগ্রহঃ দেবজিৎ কুন্ডু