ঢাকামঙ্গলবার, ৩১শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, রাত ৪:০১
আজকের সর্বশেষ সবখবর

পেট্রোল পাম্প অবৈধভাবে দখলের চেষ্টায় আদালতে মামলা করায় নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে বাদী

ESAHARA NEWS
ডিসেম্বর ২৪, ২০২২ ৫:১৪ অপরাহ্ণ
পঠিত: 34 বার
Link Copied!

বিশেষ প্রতিনিধি : সম্প্রতি বন্দর নগরী বেনাপোলে অবস্থিত তনিমা পেট্রোল পাম্পের মালিকদের বেধড়ক মারপিট করে পাম্প দখলের অপচেষ্টায় আদালতে মামলা দায়ের করায় সন্ত্রাসীরা নাভারণস্থ সাতক্ষীরা মোড়ের বাড়িতে গিয়ে বিভিন্ন রকমের ভয়ভীতি ও জীবন নাশের হুমকি দিচ্ছে।

জানা গেছে, সম্প্রতি শার্শার বসতপুর গ্রামের জামাল ও আনোয়ারের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী কর্তৃক পেট্রোল পাম্প দখল করতে যেয়ে দখল চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে গন্ডা বাহিনী দিয়ে পাম্পের মালিক তনিমা তাসনুভা (৩০)কে খুন করার উদ্দেশ্যে হামলা করে, হামলার শিকার হয় বেশ কয়েক জন, তারা এখন ২৫০ শয্যা হাসপাতালের চিকিৎসাধীন । কথা গুলো বললেন পাম্পের মালিক তনিমা তাসনুভা । ঐ দিন কি ঘটনা ঘটে ছিল, জানতে চাইলে হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে তিনি বলেন, দীর্ঘদিন যাবৎ শার্শার বসতপুর গ্রামের জামাল হোসেন ও তার ভাই আনোয়ার পাম্পটি দখল করে নেওয়ার জন্য এলাকার একটি অপশক্তি ও সন্ত্রাসীদের যোগসাজসে ষড়যন্ত্র করে আসচ্ছে । তারা সুযোগ বুঝে গত ২৯-১১-২০২২ সময় আনুমানিক ১২ টার সময় জামাল ও আনোয়ারের নেতৃত্বে ৩০/৪০ জনের একদল সশস্ত্র ক্যাডার অস্ত্র সশত্র নিয়ে পাম্পের আশপাশে জড় হতে থাকে, তখন পাম্পের ম্যানেজার খবর দিলে, আমি ও আমার দুই ভাই ও আমার গাড়ীর ডাইভারসহ ১ টার দিকে প্রাইভেট কারযোগে পাম্পে পৌঁছাই, দেখি পাম্পের ম্যানেজারকে অস্ত্রের মুখে তারা জিম্মি করে রেখেছ, তাৎক্ষনিক বেনাপোল পোর্ট থানাকে সাহায্যের জন্য মোবাইল ফোনে জানালেও সাহায্য করেনি পুলিশ প্রশাসন । আমরা যখন পাম্পের বারান্দায় উঠি তার আগেই উক্ত জামাল ও আনোয়ারের নেতৃত্বে ঐ সকল সন্ত্রাসী আমাদের উপর লোহার রড, হাতুডী, চাইনিজ কুড়াল নিয়ে হামলা করে । আমাদের চিৎকারের শব্দ শুনে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে এসে আমাদের উদ্ধার করে হাসপাতালের পাঠান । পাম্প দখলের বিষয়টি ও আমার পরিবার নিরাপত্তহীনতায় ভুগছি। এ বিষয়ে নাভারণ সহকারী পুলিশ সুপারকে জানালে তিনি কোন ব্যবস্থা নেননি। বাধ্য হয়ে আমরা বিজ্ঞ আদালতে মামলা দায়ের করি। মামলা করার পর জামাল গং আরো বেপরোয়া উঠে। আমাদের নাভারণস্থ বাড়িতে গিয়ে বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতিসহ প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে। যার ফলে আমরা নিরাপত্তাহীনতায় দিনাতিপাত করছি। যেকোন মূহুর্তে তারা আমাদের ক্ষতিগ্রস্ত করতে পারে। এ সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের আশু হস্থক্ষেপ কামনা করছেন ভুক্তভোগী পরিবার।